Exclusive interview with bjp candidate and actor rudranil ghosh - 'পশ্চিমবঙ্গের মানুষ দল বদল করলে আমি কেন পারব না', একান্ত সাক্ষাৎকারে মন্তব্য রুদ্রনীলের | Editorji Bengali
editorji
editorji অ্যাপ ডাউনলোড করুনgoogle apple
  1. home
  2. > পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভা ভোট
  3. > 'পশ্চিমবঙ্গের মানুষ দল বদল করলে আমি কেন পারব না', একান্ত সাক্ষাৎকারে মন্তব্য রুদ্রনীলের
prev iconnext button of playermute button of playermaximize icon
mute icontap to unmute
video play icon
00:00/00:00
prev iconplay paus iconnext iconmute iconmaximize icon
close_white icon

'পশ্চিমবঙ্গের মানুষ দল বদল করলে আমি কেন পারব না', একান্ত সাক্ষাৎকারে মন্তব্য রুদ্রনীলের

Apr 16, 2021 11:18 IST | By Editorji News Desk

চলতি বিধানসভা নির্বাচনে নন্দীগ্রাম হাইভোল্টেজ আসন হলেও খোদ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ছেড়ে যাওয়া ভবানীপুর কেন্দ্রও কোনও অংশে কম নয়। সেখানে ভোটগ্রহণ ২৬ এপ্রিল। এ বার এই আসনে লড়াই পোড় খাওয়া রাজনীতিক শোভনদেব চট্টোপাধ্যায়ের সঙ্গে বিজেপির তারকা প্রার্থী ও অভিনেতা রুদ্রনীল ঘোষের। যদিও এডিটরজির সঙ্গে একান্ত সাক্ষাৎকারে এই লড়াইকে তৃণমূল-বিজেপির লড়াই হিসেবে মানতে নারাজ রুদ্রনীল। তাঁর মতে এই লড়াই সাধারণ মানুষের সঙ্গে তৃণমূল সরকারের। পাশাপাশি জয়ের বিষয়ে ১০০ শতাংশ আশাবাদী বলেও সাক্ষাৎকারে আমাদের জানিয়েছেন তিনি।

  • লড়াই কতটা কঠিন?

যে কোনও নির্বাচনই কঠিন। কিন্তু, এ বারের লড়াই সাধারণ মানুষের সঙ্গে তৃণমূল সরকারের। বিজেপির সঙ্গে তৃণমূলের নয়। সাধারণ মানুষ যা যা দুর্নীতি দেখেছিলেন তার বিরুদ্ধে ভোট দেওয়ার জন্য একটা শক্ত প্ল্যাটফর্ম খুঁজছিলেন। আর বিজেপি হল সেই শক্ত প্ল্যাটফর্ম।

  • মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের আসন ভবানীপুর থেকে এ বার আপনি লড়ছেন, চিন্তা হচ্ছে?

প্রথমদিকে চিন্তা হচ্ছিল। কিন্তু, যখন বিজেপিতে যোগ দিলাম ও ভবানীপুরে প্রার্থী হিসেবে মানুষের কাছে এলাম তখন দেখলাম আমার সব চিন্তা ভবানীপুরের মানুষ নিয়ে নিয়েছেন। তাঁরা বিজেপির প্রার্থীকে জেতাবেন বলে একপ্রকার নিশ্চিত। না হলে মুখ্যমন্ত্রী নিজের এলাকা ছেড়ে পালিয়ে যান।

  • মঞ্চ থেকে তৃণমূলত্যাগীদের আক্রমণ করছেন মুখ্যমন্ত্রী। এ প্রসঙ্গে আপনি কী বলবেন?

সবাই জানেন যে শেষে উনি মিথ্যে কথা বলে ফেলছেন। এর চেয়ে বেশি কিছু নয়। সবাই জানেন যে তাঁরা দুর্নীতিপরায়ণ।

  • একসময় বাম, তারপর তৃণমূল, এরপর বিজেপি। সত্যি কি একজন মানুষ এত দ্রুত চিন্তাভাবনা পাল্টে ফেলতে পারেন?

পশ্চিমবঙ্গের মানুষ প্রথমে কংগ্রেস ছিলেন। তারপর তাঁরা সিপিআইএম হয়েছেন। এরপর তৃণমূল হয়েছেন। সেটা ভালো থাকা ও বাঁচার জন্য। পশ্চিমবঙ্গের মানুষ যদি পারেন তাহলে আমি কেন পারব না।

  • আপনার ইন্ডাস্ট্রির বন্ধুরা বিজেপি বিরোধী গান বানিয়েছেন। সেই বিষয়ে কী বলবেন?

ওদের ভালো হোক। শুধু এটাই বলব।

  • বন্ধুদের সঙ্গে কি কোথাও না কোথাও মনোমালিন্য হয়েছে?

একদম নেই। তারা বন্ধু। আর ওটা জীবিকা আর এটা নিজের রাজনৈতিক মানসিক জ্ঞান।

  • পশ্চিমবঙ্গের মানুষের উদ্দেশে কি বলবেন?

আপনারা নীতি আর দুর্নীতির তফাৎ বুঝে ভোট দেবেন।

  • সাধারণ মানুষের থেকে কেমন সাড়া পাচ্ছেন?

খুব ভালো সাড়া পাচ্ছি। ভবানীপুর ও রাজ্যের মানুষ বিজেপির পক্ষে। আসলে তাঁরা তৃণমূলের দুর্নীতির বিরুদ্ধে।

  • আগামীদিনে নেতা রুদ্রনীল নাকি অভিনেতা রুদ্রনীলকে বেশি দেখা যাবে?

আমি সমান বা তাল বজায় রাখতে জানি। এটা মানুষের আশীর্বাদের উপর নির্ভর করছে।

পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভা ভোট