Exit Poll Result of west bengal assembly election - নবান্ন দখলের লড়াই : অধিকাংশ সমীক্ষা এগিয়ে তৃণমূল, কোথাও হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ের ইঙ্গিত | Editorji Bengali
editorji
editorji অ্যাপ ডাউনলোড করুনgoogle apple
  1. home
  2. > রাজ্য
  3. > নবান্ন দখলের লড়াই : অধিকাংশ সমীক্ষায় এগিয়ে তৃণমূল, কোথাও হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ের ইঙ্গিত
prev iconnext button of playermute button of playermaximize icon
mute icontap to unmute
video play icon
00:00/00:00
prev iconplay paus iconnext iconmute iconmaximize icon
close_white icon

নবান্ন দখলের লড়াই : অধিকাংশ সমীক্ষায় এগিয়ে তৃণমূল, কোথাও হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ের ইঙ্গিত

Apr 30, 2021 09:36 IST | By Editorji News Desk

শেষ পশ্চিমবঙ্গের বিধানসভা নির্বাচন। নির্বাচন কমিশনের নজরে মোট আট দফায় ভোট প্রক্রিয়া বৃহস্পতিবার সম্পন্ন হয়েছে রাজ্যে। আর তারপরই একে একে প্রকাশিত হচ্ছে বুথ ফেরত সমীক্ষার ফল। কারও সমীক্ষায় এগিয়ে রয়েছে তৃণমূল কংগ্রেস। আবার কোনও সমীক্ষায় রয়েছে হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ের ইঙ্গিত।

 এবিপি সি ভোটারের বুথ ফেরত সমীক্ষা বলছে এ বারও রাজ্যে সরকার গড়ে হ্যাট্রিক করতে চলেছে তৃণমূল কংগ্রেস। তাদের সমীক্ষা অনুযায়ী, ১৫২ থেকে ১৬৪টি আসন পেতে পারে তৃণমূল কংগ্রেস। বিজেপি পেতে পারে ১০৯ থেকে ১২১টি আসন। আর সংযুক্ত মোর্চা পেতে পারে ১৪ থেকে ২৫টি আসন।

রিপাবলিক সিএমএক্সের বুথ ফেরত সমীক্ষা অনুযায়ী, তৃণমূল পেতে পারে ১২৮ থেকে ১৩৮টি আসন। বিজেপির দখলে থাকবে ১৩৯ থেকে ১৪৮টি আসন। সংযুক্ত মোর্চা পেতে পারে ১১ থেকে ২১টি আসন ও অন্যরা ৬টি থেকে ৯টি আসন পেতে পারে।

টাইমস নাও সি ভোটারের সমীক্ষা অনুযায়ী, তৃণমূল পেতে পারে ১৪২ আসন। বিজেপি ১৩৬  টি আসন ও সংযুক্ত মোর্চা পেতে পারে ১৪ টি আসন।

ইন্ডিয়া টুডে-অ্যাক্সিস মাই ইন্ডিয়ার সমীক্ষা বলছে, এ বারের নির্বাচনে তৃণমূল পেতে পারে ১৩০ থেকে ১৫৬টি আসন। বিজেপি পেতে পারে ১৩৪ থেকে ১৬০ আসন। আর সংযুক্ত মোর্চার দখলে যেতে পারে সর্বোচ্চ ৩টি আসন।

জন কি বাতের বুথ ফেরত সমীক্ষায় বলছে, এ বারের বিধানসভা নির্বাচনে তৃণমূল পেতে পারে ১০৪ থেকে ১২১ টিআসন। বিজেপির দখলে যেতে পেতে পারে ১৬২ থেকে ১৮৫ আসন। আর সংযুক্ত মোর্চা পেতে পারে ৩ থেকে ৯টি আসন।

নিউজ ২৪-চাণক্যর সমীক্ষায় এগিয়ে রয়েছে তৃণমূল। তাদের সমীক্ষা বলছে, তৃণমূল পেতে পারে ১৮০টি আসন। বিজেপি ১০৮ ও সংযুক্ত মোর্চা ৪টি আসন পেতে পারে।

রাজ্য